২০১৩ সালের রানা প্লাজা দুর্ঘটনার পর বাংলাদেশ সরকার শিল্পক্ষেত্রে নিরাপত্তার বিষয়টিকে প্রাতিষ্ঠানিক রূপ দেয়ার জন্য বিশেষ গুরুত্ব দিয়ে আসছে। এই প্রচেষ্টার অংশ হিসেবে ২০১৩ থেকে ২০১৫ এর মধ্যে ৩৫০০ এর বেশি রপ্তানিমুখী তৈরি পোশাক শিল্প কারখানার নিরাপত্তা মুল্যায়ন করা হয়েছে, যাতে ভবনের কাঠামো, বৈদ্যুতিক এবং অগ্নি-নিরাপত্তার বিষয় যাচাই করা হয়। বাংলাদেশ অ্যাকর্ড অন ফায়ার এন্ড বিল্ডিং সেফটি (অ্যাকর্ড), অ্যালায়েন্স ফর বাংলাদেশ ওয়ার্কার সেফটি (অ্যালায়েন্স) এবং বাংলাদেশ সরকারের জাতীয় উদ্যোগ, যা আইএলও'র সহযোগিতায় পরিচালিত, এর অধীনে এসব পরিদর্শন সম্পন্ন করা হয়।

পরিদর্শনের পর, ন্যাশনাল ইনিশিয়েটিভের অধীনে মূল্যাায়নকৃত  তৈরি পোশাক কারখানাগুলির প্রতিকার প্রক্রিয়া পরিচালনা করতে অন্যান্য শিল্প নিয়ন্ত্রকদের সাথে একত্রে কলকারখানা ও প্রতিষ্ঠান পরিদর্শন অধিদপ্তর (ডিআইএফই) এর অধীনে একটি সংস্কারকাজ সমন্বয় কেন্দ্র (আরসিসি) স্থাপন করা হয়েছে।